Monday, October 16, 2017
বাংলাদেশ হিন্দু মন্দির, মন্ট্রিয়লে বিগ্রহের প্রাণ প্রতিষ্ঠা ও শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত

সিবিএনএ কানাডা থেকে।। সর্বজনীয় সম্প্রীতি ও সৌহার্ধের মেলবন্ধনে বাংলাদেশ হিন্দু মন্দির, মন্ট্রিয়ল, কানাডার ভাবগম্ভীর ও আনন্দঘন পরিবেশে শাস্ত্রের বিধানবলিতে বিগ্রহের প্রাণ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শুভ উদ্বোধন হয়েছে মহাসমারোহে। গত ২১ জুলাই থেকে ২৩ জুলাই তিনদিনব্যাপী হিন্দু মন্দিরে বিগ্রহের প্রাণ প্রতিষ্ঠার ভক্তিমিশ্রিত আনন্দঘন অনুষ্ঠানে প্রতিদিনই ছিলো শাস্ত্রীয় বিধানবলিতে পূজা -অর্চ্চনা ধ্যান, হোম, যজ্ঞ, বেদমন্ত্রের আরাধনাসহ যাবতীয় শাস্ত্রীয় ক্রিয়াদিতে সকাল-সন্ধ্যায় বিপুল সংখ্যক প্রবাসীদের উপস্থিতি ছিলো দেখার মতো। প্রথম দু’দিনে সন্ধ্যায় ছিলো রকমারি ও বৈচিত্রময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ২১ জুলাই রাতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মল্লিকা পাল। এতে বিশেষ আকর্ষণ ছিলো সংগীত শিল্পী নিরোজ বুড়ুয়ার পরিচালনায় ছোট সোনামনিদের কীর্তন ও কীর্তনীয়া অমিয় কুমার দেবের পরিচালনায় ভজনকীর্তন সম্বলিত নৌকা বিলাস । ২২ জুলাই বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী কাত্যায়নী অধিকারীর পরিচালনায় দলীয় নৃত্যে গনেশ বন্ধনার মাধ্যমে সন্ধ্যাকালীন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়। এতে একক কন্ঠে সংগীত পরিবেশন করেন চিন্ময়, দিব্যজ্যোতি, সিনথিয়া, সিলিয়া, নিলয়, ঋক ভট্টাচার্য, দেবাশীষ বার্মা, রবী তালুকদার। নৃত্য পরিচালনা করেন ঈশিতা দাস ও সুপ্রিয়া পাল। অনুষ্ঠানগুলো উপস্থাপনা করেন নিতা দেবনাথ ও ববিতা বিশ্বাস। ২৩ জুলাই তৃতীয় দিন দুপুরে মন্দিরের বিগহের প্রাণ প্রতিষ্ঠার শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয় সম্মানীত মন্ত্রী, মন্ট্রিয়লের ডেপুটি মেয়র কানাডা পার্লামেন্টের এমপি, বিভিন্ন মন্দিরের পুরোহিতসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং বিপুল সংখ্যক প্রবাসীর প্রাণবন্ত ও আনন্দঘন উপস্থিতিতে। সকাল থেকেই পূজা অর্চণা যজ্ঞ সম্পন্ন হবার পাশাপাশি সংগীত শিল্পী বিশ্বজিত দে বাবলুর পরিচালনায় ও দেবপ্রিয়াকর রুমার সহযোগিতায় এবং মন্ট্রিয়লের প্রবাসী শিল্পীবৃন্দের সমবেত কন্ঠে ‘আনন্দধারা’ গানের মধ্যে দিয়ে শুভ উদ্বোধনী সূচনা হয়।
মন্দিরে বিগ্রহের প্রাণ প্রতিষ্ঠায় চক্ষু উন্মোচনের অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন নবদ্বীপ থেকে আগত গুরুদেব শ্রীমৎ রতনকৃষ্ণ গোস্বামী ও পন্ডিত কেশব দত্ত শাস্ত্রী এবং শ্রী অলক ভট্টাচার্য। অনন্যা দেব দিতি’র পরিচালনায় শিশুদের নৃত্যানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বড়দের নৃত্যে অংশগ্রহণ করেন দিপ্তী পাল, অনন্যা দেব, নিতা দেবনাথ, বিনী দেব ও পূজা দেব চৌধুরী।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নবদ্বীপ থেকে আগত গুরুদেব শীমৎ রতনকৃষ্ণ গোস্বামী, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ক্যুইবেক প্রদেশের বিজ্ঞান, অর্থনীতি ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রী ম্যাডাম ডমিনিক আংলেড, মন্ট্রিয়লের ডেপুটি মেয়র মেরী ডরেস, কানাডা পার্লামেন্টের সংসদ সদস্য ডেবিড লামেটি ও অঞ্জু ধিলন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পুরোহিত অলক ভট্টাচার্য, পন্ডীত কেশব দত্ত শাস্ত্রী, হিন্দু মন্দিরের সভাপতি স্বপন পাল ও সম্পাদক কৃপেশ পাল। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বিদ্যুৎ ভৌমিক ও মল্লিকা পাল।
তিনদিনব্যাপী বিশাল অনুষ্ঠানগুলো সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনা করেন স্বপন পাল, কৃপেশ পাল, কল্লোল সোম পান্না, তাপস ধর, আকাশ কাপালী, অশোক দাস তরুন, নিতাই দেব, নয়ন রায়, রতন ধর, বাবুল বর্ধন, পুলক তরফদার, প্রবীর ঘোষ, অজয় পাল ও অজয় নাগ। অনুষ্ঠানের তিনদিনই মহাপ্রসাদ বিতরণ করা হয়েছে। বিগ্রহের প্রাণ প্রতিষ্ঠা ও শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে ‘নীলপদ্ম’ নামে সংকলণ প্রকাশিত হয়েছে।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।