Monday, October 16, 2017

জামিলুর রেজা চৌধুরী

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : বিজ্ঞান, প্রকৌশল এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে অসাধারণ অবদানের জন্যে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরীকে ‘বিডিআই আজীবন সম্মাননা-২০১৭’ এওয়ার্ড প্রদানের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হলো। যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশী-আমেরিকান গবেষক-পেশাজীবীদের সংগঠন ‘বিডিআই’ (বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ইনিসিয়েটিভ) এর আগামী বছরের শেষার্ধে অনুষ্ঠেয় আন্তর্জাতিক সম্মেলনে এই এওয়ার্ড হস্তান্তর করা হবে। বিডিআইয়ের প্রেসিডেন্ট ড. মুনির কুদ্দুস ১ আগস্ট এ সংবাদদাতাকে এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে ২০১৫ সালের বিডিআই সম্মেলনে ‘আজীবন সম্মাননা এওয়ার্ড’ প্রদান করা হয় জাতীয় অধ্যাপক নূরল ইসলামকে। এবং ২০১৩ সালে প্রদান করা হয় বিশ্বখ্যাত অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক রেহমান সোবহানকে। উল্লেখ্য, ১৯৯৫ সালে পেনসিলভেনিয়ার ‘ইউনিভার্সিটি অব পিটসবার্গ’র মিলনায়তনে প্রথম সম্মেলনের মধ্য দিয়ে মার্কিন মুল্লুকে বিভিন্ন সেক্টরের শীর্ষস্থানীয় ও মেধাবি বাংলাদেশীরা প্রবাসের অভিজ্ঞতায় বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রগতিতে অবদান রাখার প্রত্যয়ে এই সংস্থা গঠন করেন। অরাজনৈতিক ব্যানারে সকলেই বাংলাদেশের উন্নয়ন-সম্ভাবনা এবং সমস্যার আলোকে বিগত সম্মেলনগুলোতে নিজ নিজ মতামত উপস্থাপন করেছেন। সে সম্মেলনসমূহে বাংলাদেশ সরকারের নীতি-নির্দ্ধারক, যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনের নীতি-নির্দ্ধারকরাও অংশ নিয়েছেন। সম্মেলনগুলো মূলত: একাডেমিক ছিল। সেমিনারের বিষয়বস্তুর আলোকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের বিশেষজ্ঞরা তাদের মতামতের প্রতিফলন ঘটিয়ে লিখিত বক্তব্যও পেশ করেছেন। অর্থাৎ বিডিআই কনফারেন্সগুলোতে বাংলাদেশের সম্ভাবনার বাস্তবায়নে সত্যিকারের চিত্র প্রতিফলিত হয়েছে। সর্বশেষ ২০১৫ সালের সম্মেলন হয়েছে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার বার্কলে-তে। এর আগে ২০১৩ সালের সম্মেলনও একইস্থানে হয়। ২০১১ সালের সম্মেলন হয়েছে রাজধানী ঢাকায়। ২০০৯ সালের বিডিআই সম্মেলন হয়েছে বস্টনে বিশ্বখ্যাত হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে।

 

 

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।