Tuesday, September 26, 2017

নিউইয়র্ক : বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাতের মধ্য দিয়ে ব্রুকলীনে শোক-দিবসের আলোচনা সভা। ছবি- ছবি-এনআরবি নিউজ।

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের মাসব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে ৯ আগস্ট বুধবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্ক সিটির ব্রুকলীনে আলোচনা সভা ও দোয়া-মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ। অতিথি হিসেবে মঞ্চে উপবেশন ও বক্তব্য রাখেন এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সম্পাদক নিজাম চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুদ্দিন আজাদ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, সহ-সভাপতি লুৎফুল করিম, যুগ্ম সম্পাদক আইরিন পারভিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ফারুক আহমেদ, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ডা. মাসুদুল হাসান, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব মফিজুর রহমান এবং সেত্রেটারি ইমদাদ চৌধুরী।
ব্রুকলীন আওয়ামী লীগ, যুবলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের সম্মিলিত উদ্যোগে এই দোয়া-মাহফিল ও আলোচনা সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ নেতা নূরল ইসলাম নজরুল এবং পরিচালনা করেন যুবলীগ নেতা আবু তাহের।
জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের সকল শহীদের আত্মার মাগফেরাত ও বঙ্গবন্ধু পরিবারের জীবিত সদস্যগণের দীর্ঘায়ু কামনা করে শুরুতেই মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয় ক্বারী মাওলানা সুলতান মাহমুদের নেতৃত্বে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. গোলাপ বলেন, ‘১৫ আগস্ট হত্যাকান্ডের নায়ক ছিলেন জিয়াউর রহমান। এটি এখন দিবালোকের মত সত্য। কারণ, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের নৃশংসতার পরের ঘটনাবলীতে সবকিছু স্পষ্ট হয়েছে যে, জিয়াউর রহমানের নির্দেশেই সবকিছু হয়েছে।’ রাজাকার শাহ আজিজসহ একাত্তরের ঘাতকদের রাজনীতিতে পুনর্বাসন করা, সাজানো মামলায় মুক্তিযোদ্ধাদের জেলে নিয়ে ফাঁসিতে ঝুলানো, বাংলাদেশকে জঙ্গিবাদের অভয়ারণ্যে পরিণত করা ইত্যাদি কাজকর্ম থেকেই জিয়াউর রহমানের দেশ বিরোধী কর্মকান্ডের প্রমাণ মেলে।
‘শোককে শক্তিতে পরিণত করে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে চলমান উন্নয়ন-অগ্রগতিকে ত্বরান্বিত করতে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে’-আহবান ড. গোলাপের।
ড. গোলাপ সকলকে অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হবার আহবান জানিয়ে বলেন, ‘একাত্তরের পরাজিত শত্রুরা এখনও নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। এই প্রবাসেও ওদের নেটওয়ার্ক রয়েছে। এগুলোকে গুড়িয়ে দিতে হবে একাত্তরের চেতনায়।’
ড. গোলাপ উল্লেখ করেন, ‘হায়েনার দল বাংলাদেশের উন্নয়ন সহ্য করতে পারে না। ওরা বাংলাদেশকে থামিয়ে দিতে চায়। জঙ্গি তৎপরতার মধ্য দিয়ে আবারো বাংলাদেশকে ব্ল্যাক লিস্ট করতে চায়। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকেরা বেঁচে থাকতে তা কখনোই হতে দেব না। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে, এই ধারা অব্যাহত থাকবেই।’
এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান নিজাম চৌধুরী বলেন, ‘দেশরত্ন শেখ হাসিনা জাতিসংঘে আসছেন। তার সফরকে সর্বাত্মক সফল করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। কারণ, আগের যে কোন সময়ের চেয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার এবারের সফরের তাৎপর্য অপরিসীম। গোটাবিশ্বের উন্নয়ন-প্রত্যাশী নেতারা তার বক্তব্য শোনার জন্যে অধীর আগ্রহে রয়েছেন।’

 

3 Comments

সাঈদ, মুক্তিযোদ্ধা August 10, 2017 at 2:43 pm

Is there any doubt in it? After finishing the killing mission Maj Dalim and Noor straight way went to AHQ where that Major General was waiting in uniform for all night. He asked those killer, “Wjhat is the news?” They replied, mission is successful”. Later on those killers were provided diplomatic job in different countries of the world. Our government should form a trial court for that Major General and his whole family.

একজন মুক্তিযোদ্ধা বিমানসেনা August 11, 2017 at 8:34 pm

এতে কোনো সন্দেহ নেই। জিয়ার চক্রান্ত না হলে বংগবন্ধু হত্যাকান্ড হতো না। ভারতে থাকতেও খন্দকার মোস্তাককে নিয়ে এই ধরনের ষড়যন্ত্রের জাল বুনিয়েছিলেন এবং সেই কারনে জিয়াকে গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছিল। সেই কথা আমরা ভুলি নাই।

71 এর একজন সামরিক মুক্তিযোদ্ধা August 11, 2017 at 10:05 pm

I know There are so many people who know the history of that night and many of them are living abroad. Why don’t the come out with their statement that they have seen practically on that night. Are they scared?

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।