Nov 21, 2017

কোক হাতে সোহেল গাজী

শব্দ নিউজ ঃ এক অনন্য সেবার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন নিউইয়র্ক কন্স্যুলেট অফিসের সোহেল গাজী। গত ১৬ আগষ্ট জ্যামাইকা থেকে পাসপোট নবায়ন করতে এসেছিলেন সুদেব রায়। তিনি ফরম পুরণ করার নির্দ্ধারিত টেবিলের সামনে দাড়িয়ে ফরম পুরণ করছিলেন। হঠাৎ দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে সুদেব রায় অজ্ঞান হয়ে মেঝেতে লুটিয়ে পরেন। তখন কন্স্যুলের মিলনায়তনে আসা ভিজিটরদের মাঝে শুরু হয় দৌড়া-দৌড়ি,হাক ডাক। সকলের চোখে-মুখে ছিল উদ্বিগ্নতা। ৯১১ কল করবেন না, অসুস্থ্যজনকে তাৎক্ষনিক সেবা দিয়ে সুস্থ্য করে তুলবেন, এ নিয়ে যখন অনেকেই দ্বিধা-দ্বন্দ্বের মধে ছিল, ঠিক সেই সময় ভিতর থেকে ছুটে আসলেন কন্স্যুলেট অফিসের ডিসপাস রিডার সোহেল গাজী। তিনি একজনকে বললেন, আমাদের টেবিলে টকলেট আছে, কেউ একজন চকলেট আনেন প্লিজ। এরপর সোহেল গাজী মেঝেতে শুয়ে থাকা সুদেব রায়কে তুলে ধরে একজনের কাছ থেকে চুইনগাম নিয়ে অসুস্থ্য মানুুষটির মুখে দিয়ে চিবোতে বললেন। সোহেল একজনকে বললেন, ভাই এনাকে একটু ধরেন, আমি আসছি। এরপর সোহেল ছুটে গিয়ে নিজের পয়সা দিয়ে কোক ও পানি কিনে আনলেন। তারপর আবার সোহেল সুদেবকে নিজের কোলে নিয়ে চোখে মুখে পানি দিয়ে কোক খাওয়ালেন। ততক্ষনে সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন সুদেব বাবু। খবর শুনে নিজের অফিস কক্ষ থেকে ছুটে এসেছিলেন কন্স্যাল জেনারেল শামীম আহসান। তিনি সোহেলকে বললেন, ৯১১ কল দিতে হবে নাকি ? সুদেব রায় কন্স্যুলেট জেনারেল ও সোহেল গাজীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বললেল, না তার আর দরকার হবে না, আমি এখন পুরোপুরি সুস্থ্য।
নিউইয়র্ক কন্স্যুলেট অফিসের বিরুদ্ধে মাঝে মধ্যে নানা হয়রানীর ও অভিযোগের খবর পাওয়া গেলেও, গত ১৬ আগষ্ট যারা কন্স্যুলেট অফিসে বিভিন্ন কাজের জন্য এসেছিলেন, তারা সোহেল গাজীর সেবা দেখে মুগ্ধ হয়ে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন । বেশ কয়েকজন মন্তব্য করলেন, আহা! সব সরকারী অফিসে সোহেল গাজীর মত যদি মানুষ থাকতো, তবে হয়ত সেবার মান অনেক ভালো হতো।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।