Nov 21, 2017

শেখ হাসিনা’কে লেখা তৎকালীন জার্মান পার্লামন্টের সদস্য Marianne Tritz এর চিঠি।

জার্মানঃ একুশে আগষ্টে’র ভয়াবহ ও বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় নিহত-মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী আইভি রহমানসহ সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন, সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগের সম্মানিত সভাপতি শ্রী অনিল দাশ গুপ্ত, সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগ, যুক্তরাজ্য, ইতালী, ফ্রান্স, জার্মান, হল্যান্ড, বেলজিয়াম, অষ্ট্রিয়া, ডেনমার্ক, সুইডেন, স্পেইন, সুইজারল্যান্ড, ফিন্ডল্যান্ড, আয়্যারল্যান্ড, পর্তুগাল, তুর্কী, নরওয়ে, রাশিয়া ও গ্রীকেনল্যান্ডসহ সমগ্র ইউরোপের আওয়ামী শাখা সংগঠন এবং প্রবাসী বাঙ্গালীদের পক্ষে-প্রবীন এই নেতা-আরো বলেন, ২১ আগষ্ট, নৃশংস বোমা হামলার উদ্দেশ্য ছিল, বিশ্বশান্তির অগ্রদূত, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র, এবং চিরদিনের জন্য আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশুন্য করা।
এই ভয়াবহতম গ্রেনেড হামলায়-অলৌকিকভাবে প্রাণে বেঁচে যান জননেত্রী শেখ হাসিনা! কিন্তু-আওয়ামী লীগ মহিলা নেত্রী আইভি রহমানসহ নিহত হয়-প্রায় ২৪জন মানুষ। সেদিন আহত হয়েছেন, আওয়ামী লীগের কয়েক শত নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষ। অথচ এই নারকীয় গ্রনেড হামলা তৎকালীন বিএনপি-জামায়াতসহ চারদলীয় জোট সরকারের প্রত্যাক্ষ মদদে সংঘঠিত হওয়ার কারেণ-তাদের পুলিশ বাহিনী ছিল, একেবারেই নির্বিকার।
তিনি আরও বলেন, ২১শে আগষ্ট ২০০৪, বঙ্গবন্ধু এ্যাভিউনিতে-বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সন্ত্রাসবিরোধী বিশাল সমাবেশে, সাম্প্রতিকালের-ভয়াবহতম গ্রেনেড হামলায় যেমন প্রকম্পিত হয়েছিল, বাংলার আকাশ-বাতাস, তেমনি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছিল সারাবিশ্ব থেকে। বিশ্ব নেতৃবৃ্ন্দ, সেদিন প্রশ্ন তুলেছিল, তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী, গণতন্ত্রের মানসকন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনার জীবনের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে। সেদিন-সারাবিশ্বের নেতৃবৃ্ন্দ, জননেত্রী শেখ হাসিনার নিরাপত্তার জোর দাবীও জানিয়েছিলেন।
এছাড়াও তাৎক্ষনিকভাবে-ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল, ঢাকাস্থ বিভিন্ন দূতাবাসের প্রতিনিধি দল ও বিভিন্ন দল এবং সংগঠনের নেতারা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী, তৎকালীন সংসদের বিরোধীদলীয় নেত্রী, বঙ্গবন্ধু কন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনার বাসভবন সুধাসদনে-যেয়ে তাঁর সঙ্গে সাক্ষাত করে, ওই নৃশংস গ্রেনেড হামলার নিন্দা জানান। এবং তাঁর জীবনের নিরাপত্তার দাবী করেন।
সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগের কান্ডারী শ্রী অনিল দাশ গুপ্ত, ভাবগম্ভীর ভাবে আরও বলেন, ওই ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার নিন্দা জানান, জার্মানের তৎকালীন রাষ্ট্র্রপ্রধানরাসহ পার্লামন্টের সকল সদস্যরা। একুশে আগষ্টের গ্রেনেড হামলার স্মৃতির স্মরণে-এখনে জার্মান পার্লামন্টের সদস্য Marianne Tritz-এর ইংরেজীতে লেখা একটি চিঠির অনুলিপি কপি যুক্ত করা হলো। ওই পার্লামন্টারী তৎকালীন সময়ে ‘গ্রেনেড হামলা’য় দুঃখ প্রকাশ করে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সম্পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে তাঁকে চিঠিটা লিখেছিলেন। তিনি, জননেত্রী শেখ হাসিনার নিরাপত্তা চেয়ে-ঐ সময়ে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকেও ফ্যাক্স মাধ্যমে চিঠি পাঠিয়েছিলেন।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।