Nov 21, 2017


বাংলা প্রেস , নিউ ইয়র্ক : গণসংগীত সমন্বয় পরিষদের সভাপতি ও বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর বলেছেন, ‘দামাদাম মাস্ত কালান্দার’ উর্দু গান গাওয়ার জন্য বাংলাদেশ স্বাধীন হয়নি। ভাষার জন্য আমরা যুদ্ধ করে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছি। দেশ ও প্রবাসে বাংলাদেশিদের সকল অনুষ্ঠানে বাংলা গান গাইব। গত শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের কানেকটিকাট অঙ্গরাজ্যে বাংলাদেশি আমেরিকান এসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বাক)-এর আয়োজনে মেরিডেন শহরের থমাস এডিসন মিডল স্কুলের মিলনায়তনে বাংলাদেশে বন্যাদুর্গতদের সাহাযার্থে তহবিল সংগ্রহের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত এক সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় সঙ্গীত পরিবেশনকালে এসব কথা বলেন তিনি। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস।
বাক এর সাংস্কৃতিক সম্পাদক রাশিদা আখন্দ লাকীর পরিচালনায় ও শারমিন রেজা ইভার সঞ্চালনায় আমেরিকা ও বাংলাদেশের জাতীয় সংঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দিয়ে শুরু হয় মুল পর্ব। এর মাঝে হলভর্তি দর্শকদের সামনে বাক-এর নব নির্বাচিত কামাল-হুমায়ুন পরিষদের নির্বাচিত সদস্যরা শপথগ্রহন করেন।
অনুষ্ঠানে স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনার পরই মঞ্চে আসেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী রিজিয়া পারভীন। তিনি তাঁর জনপ্রিয় বেশ কয়েকটি গান পরিবেশনের পর নিউ ইয়র্ক প্রবাসী শিল্পী শাহ মাহবুবকে মঞ্চে ডেকে নেন। তাঁরা দু’জনেই দ্বৈতকন্ঠে শুরু করেন উর্দুগান ‘ ও হো, হো হো হো- হো লাল মেরি পাত, রাখিও বালা ঝুলে লালান, সিন্দাদি দা সিভান দা, সাখি শাহ বাজ কালান্দার, দামাদাম মাস্ত কালান্দার, আলি দামদাম দি আন্দার, দামাদাম মাস্ত কালান্দার, আলি দা পয়লা নাম্বার, হো লাল মেরি—-।
এরপর মঞ্চে আসেন বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর। তিনি বেশ কয়েকটি গণসঙ্গীত পরিবেশনের পর মনের ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘দামাদাম মাস্ত কালান্দার’ উর্দু গান গাওয়ার জন্য বাংলাদেশ স্বাধীন হয়নি। ভাষার জন্য আমরা যুদ্ধ করে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছি। দেশ ও প্রবাসে বাংলাদেশিদের সকল অনুষ্ঠানে বাংলা গান গাইব।
অপর দিকে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত প্রবাসের জনপ্রিয় সমকালীন ও লোকগানের শিল্পী কৌশলী ইমা গান গাওয়ার পুর্বে কোন রাজনৈতিক গান না গাওয়ার জন্য বাক-এর বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা তাঁকে পৃথক পৃথকভাবে নিষেধ করেন। এদের মধ্যে সদস্য হারুন আহমেদ ও আজিম ফাহমি গানের ব্যাপারের তাঁর সঙ্গে কথাও বলেছেন। সাংস্কৃতিক সম্পাদক রাশিদা আখন্দ লাকী অনেকের উদ্ধৃতি দিয়ে কৌশলী ইমাকে জিজ্ঞেস করেন আপনি কী গান করবেন।কারো নাম উল্লেখ না করে তিনি বলেন আপনার একটা গান নিয়ে অনেকের আপত্তি রয়েছে।সেই গানটি এখানে গাওয়া যাবে না।
বাক একটি অরাজনৈতিক সংগঠন। এ মঞ্চে কোন রাজনৈতিক গান চলবে না। কর্মকর্তারা একথা বললেও জনপ্রিয় শিল্পী ফকির আলমগীর মঞ্চে গান গাওয়ার এক ফাঁকে গেয়ে ফেলেন ‘যদি রাজপথে আবার মিছিল হতো বঙ্গবন্ধুর মুক্তি চাই, তবে বিশ্ব পেতো এক মহান নেতা, আমরা পেতাম ফিরে জাতির পিতা, যদি রাত পোহালে শোনা যেত বঙ্গবন্ধু মরে নাই–। তাঁর এ গানের পর উপস্থিত দর্শকশ্রোতারা এটিকে একটি রাজনৈতিক গান বলে উল্লেখ করেছেন। কারন দর্শকদের কাতারে বিভিন্ন দলের সমর্থক ও কর্মিরা উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে বাক-এর মঞ্চে কেন রাজনৈতিক ও উর্দুগান গাওয়া হল এ প্রশ্ন করা হয়েছিল অনুষ্ঠানের আহবায়ক কবির আখন্দ, বাক-এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুল আলম নুরু, সাধারন সম্পাদক হুমায়ুন আহমেদ চৌধুরী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক রাশিদা আখন্দ লাকী, সদস্য হারুন আহমেদ ও আজিম ফাহমিকে।তাঁরা কেউই এ প্রশ্নের সঠিক জবাব দিতে পারেননি।
উপস্থাপিকা শারমিন রেজা ইভা শিল্পী রিজিয়া পারভীন ও শাহ মাহবুবের উর্দুগান পরিবেশনের সময় কোন রকম বাঁধা প্রদান করেননি, অথচ তিনি গত কয়েক বছর আগে ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যে অনুষ্ঠিত ফোবানা সম্মেলনে ভারতের জনপ্রিয় শিল্পী ড. অনুপ ঘোষালের হিন্দি গান পরিবেশনের সময় তাঁর গান গাওয়া বন্ধ করে বলেছিলেন বাঙালিদের অনুষ্ঠানে হিন্দি গান চলে না। তাঁর উপস্থিতিতেই মঞ্চে উর্দুগান পরিবেশনে কেন তিনি বাঁধা প্রদান করেননি তা নিয়েও দর্শকশ্রোতাদের মাঝে নানা প্রশ্ন উঠেছে। বাংলাদেশে বন্যাদুর্গতদের সাহাযার্থে তহবিল সংগ্রহের লক্ষ্যে এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি করা হলেও ওইদিন কী পরিমান অর্থ সংগ্রহ করা হয়েছে এর সঠিক হিসাব কেউ দিতে পারেনি। আদায়কৃত অর্থের কোন হিসাব পাওয়া যাচ্ছে না এ প্রশ্নের জবাবে বাক-এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুল আলম নুরু এখনো হিসাব হয়নি।গত পাঁচ দিনেও গণনা করা হয়নি ত্রাণের অর্থ?

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।