Thursday, October 19, 2017


নিউইয়র্ক (ইউএনএ): রোহিঙ্গা সঙ্কট বিষয়ে নিউইয়র্কে সচেতন প্রবাসী বাংলাদেশী সমাজের সভায় অবিলম্বে কফি আনান কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করার দাবী করে বক্তারা বলেন, রোহিঙ্গাদের উপর মায়ানমারের সামরিক জান্তারা যে অত্যাচার, নিপীড়ন-নির্যাতন চালাচ্ছে তা মানবতার ইতিহাসের সকল নির্যাতনকে হার মানিয়েছে। ধর্ম-বর্ণের উর্ধ্বে মানুষ হিসেবে রোহিঙ্গাদের সমস্যা সমাধানে সকল আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের পাশে দাঁড়ানোর এখনই সময়। বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ সরকার চরম সঙ্কটে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় এবং সেনাবাহিনী মোতায়েন করে সঠিক কাজ করেছেন। তবে রোহিঙ্গাদের সাহায্য-সহযোগিতার নামে যেমন বাংলাদেশ সীমান্তে কোন অন্যায়-অবিচার, অনিয়মন, নির্যাতন-নিপীড়ন, দূর্নীতি, স্বজপ্রীতি না হয় সেইদিকে সরকারকে অবশ্যই কঠোর ও সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। খবর ইউএনএ’র।
সিটির জ্যাকসন হাইটসে গত ২২ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় ‘সচেতন প্রবাসী বাংলাদেশী সমাজ’-এর ব্যানারে আয়োজিত ‘স্টপ জেনোসাইড ইন মায়ানমার’ শীর্ষক সভায় সভাপতিত্ব করেন আন্তর্জাতিক ফারক্কা কমিটি (আইএফসি)-এর চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান ইউসুফজাই সালু। বিশিষ্ট রাজনীতিক ও কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট আলী ইমাম শিকদারের পরিচালনায় সভায় আলোচনায় অংশ নেন মূলধারার রাজনীতিক নিউইয়র্ক সিটির কুইন্স ডিষ্ট্রিক্ট ডেমোক্র্যাট লিডার মোহাম্মদ আমিনুল্লাহ, সাপ্তাহিক আজকাল সম্পাদক মনজুর আহমদ, সাপ্তাহিক বাংলাদেশ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদ এ খান, বিশিষ্ট সাংবাদিক মঈনুদ্দীন নাসের, বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন খান, অধ্যাপিকা হুসনে আরা বেগম, বিশিষ্ট রাজনীতিক অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, কমিউনিটি নেতা কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন, চট্টগ্রাম সমিতি ইউএসএ’র সাবেক সভাপতি কাজী সাখাওয়াত হোসেন আজম, কবি নাসরিন চৌধুরী, কবি লুবনা কাইজার, লাগোর্ডিয়া কমিউনিটি কলেজ স্টুডেন্ট গভামের্ন্টের সাবেক সভাপতি জয় চৌধুরী প্রমুখ।
সভায় বিশিষ্ট লেখক মাহমুদ রেজা চৌধুরী, বিশিষ্ট সাংবাদিক এবিএম সালাহউদ্দিন আহমেদ, কবি ও লেখক এবিএম সালেউদ্দীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় বক্তারা রোহিঙ্গা সমস্যার কারণ ও পূর্বাপর ইতিহাস সংক্ষেপে তুলে ধরে বলেন, সামরিক শাসন আর গণতন্ত্র একসাথে চলতে পারে না। নির্যাতিত-নিপীাড়িত রোহিঙ্গাদের অধিকাংশ মুসলিম হলেও তাদের বড় পরিচয় তারা মানুষ। তাই ধর্মীয় পরিচয়টা বড় না দেখে মানবাতার দৃষ্টিকোন আর মানবিক কারণে বিশ্ব সম্প্রদায়কে তাদের পাশে দাঁড়ানো দরকার। বক্তারা বলেন, ভারত-চীন আর মায়ানমারের অর্থনৈতিক স্বার্থকে বড় করে দেখে পরিকল্পিতভাবেই রোহিঙ্গাদের উপর নিপীড়ন-নির্যাতন, খুন, হত্যা, ধর্ষণ আর দেশছাড়া করা হচ্ছে। যা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। বক্তারা রোহিঙ্গাদের জন্য আর্থিক সহযোগিতা সহ সর্বোতভাবে সাহায্য-সহযোগিতা করার জন্য স্ব স্ব অবস্থান থেকে এগিয়ে আসার জন্য প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি আহ্বান জানান এবং রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের জন্য অবিলম্বে ‘কফি আনান কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করার দাবী’ সহ আন্তর্জাতিক মহলের কার্যকর সহযোগিতা কামনা করেন।
সভায় আতিকুর রহমান ইউসুফজাই সালু রোহিঙ্গা সঙ্কটের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যাকে কেন্দ্র করে প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ আজ মানবিক সমস্যার মুখোমুখি দাঁড়িয়েছে। বিভিন্নভাবেই বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছে। রোহিঙ্গা সহ বাংলাদেশের সমস্যায় প্রবাসী দেশপ্রেমিক নাগরিকরা চুপ থাকতে পারে না। তিনি সকল প্রবাসীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানানোর পাশাপাশি অবিলম্বে ‘কফি আনান কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করার দাবী’ এবং রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানের জন্য চীন ও রাশিয়ার প্রতিনিধি পাঠানো জন্য দেশ দুটির সরকার প্রধানের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি বলেন, লাখো শহীদের বিনিময়ে বহু কষ্টে অর্জিত আমাদের স্বাধীনতা যেকোন মূল্যে অক্ষুন্ন রাখতে হবে।
সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রবাসীদের সহযোগিতায় রোহিঙ্গাদের সাহায্যার্থে আর্থিক ফান্ড গঠন এবং সেই অর্থ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের মাধ্যমে যথাযথভাবে বিশেষ করে অসুস্থ্য রোহিঙ্গাদের সেবার জন্য ব্যয় করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।