Nov 22, 2017


এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকেঃ ২৫ আগস্টের পর রোহিঙ্গা রিফ্যুজিদের খাদ্য ও চিকিৎসাসহ জরুরী প্রয়োজন মেটাতে যুক্তরাষ্ট্র ৪০ মিলিয়ন ডলার (৩২০ কোটি টাকা) দিয়েছে। এ নিয়ে গত ২০১৭ অর্থ বছর (৩০ সেপ্টেম্বর সমাপ্ত ১২ মাস)সহ বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের জরুরী প্রয়োজনের জন্যে যুক্তরাষ্ট্র মোট ১০৪ মিলিয়ন ডলার (৮৫০ কোটি টাকা) দিয়েছে। ২২ অক্টোবর রোববার অপরাহ্নে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।
আর এ তথ্য ব্যয় করা হচ্ছে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় শিবিরে কর্মরত জাতিসংঘ উদ্বাস্তু বিষয়ক হাই কমিশনার, ইউনিসেফ, আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা এবং বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির মাধ্যমে। যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক পার্টনার হিসেবে এসব সংস্থা সরেজমিনে কাজ করছে। মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র এই বিবৃতিতে উল্লেখ করেছেন, ২৫ আগস্টের পর থেকে এ যাবত সাড়ে ৫ লাখের অধিক রোহিঙ্গা প্রাণ বাঁচাতে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশের বসতবাড়ি ছেড়ে বাংলাদেশে আসতে বাধ্য হয়েছে। এদের বাসস্থান, খাদ্য, চিকিৎসাসহ বিশেষ জরুরী প্রয়োজন মেটাতে যুক্তরাষ্ট্রের এই সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
রোহিঙ্গাদের এই মানবিক বিপর্যয়ে বাংলাদেশের ভ’মিকার পুনরায় প্রশংসা করে এই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র।’
‘আমরা নর্দার্ন রাখাইন প্রদেশে দাঙ্গা মেটাতে জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণের আহবান জানাচ্ছি এবং গৃহত্যাগীরা যাতে নির্ভয়ে, মর্যাদার সাথে নিজ নিজ বাড়িতে ফিরতে পারেন সে ধরনের পরিবেশ তৈরীর জনেও মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহবান জানাচ্ছি। কফি আনান কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী রাখাইন প্রদেশে স্থায়ী শান্তি এবং জনজীবনে স্থিতি প্রতিষ্ঠায় মিয়ানমার সরকার যে অঙ্গিকার করেছে, তাকে স্বাগত জানাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার’-উল্লেখ করা হয়েছে এই বিবৃতিতে। একইসাথে রাখাইনে ত্রাণ কার্য পরিচালনার জন্যে আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহের লোকজনের অবাধ প্রবেশাধিকার নিশ্চিতের আহবান জানানো হয়েছে বিবৃতিতে।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।