Nov 22, 2017


ইউএসএনিউজঅনলাইন.কম : নিউইয়র্কে শ্রমিক লীগের ৩৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদেও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. দীপু মনি এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আওয়ামীলীগকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে। আগামী নির্বাচন অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এ নির্বাচনে পুনরায় আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে সকল দ্বিধা-বিভক্তি ভুলে প্রবাস থেকেও সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। দলাদলি নয়, দলের উন্নয়ন কর্মকান্ড মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে, মানুষের আস্থা বাড়াতে হবে। তিনি বলেন, সময় হলেই যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সম্মেলন হবে। ঐক্যবদ্ধভাবে দল ও দেশের জন্য কাজ করুন। আওয়ামী লীগ অনেক বড় দল। নানা বিষয় নিয়ে দলের নেতা-কর্মীদের মতভেদ থাকাটা স্বাভাবিক। তবে ঐক্যবদ্ধ সাংগঠনিক প্রয়াসে দলে যেকোন বিভেদ দূর করা সম্ভব। এজন্য দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সংগঠন পরিচালনা এবং সাংগঠনিক সিদ্ধান্তে দলের কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান জানান তিনি।
স্থানীয় সময় গত ২৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি। অনুষ্ঠানে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মো: সিরাজুল ইসলাম টেলি কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন।
যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জুয়েল আহমেদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমন্বয়কারী ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহিম বাদশা, দপ্তর সম্পাদক প্রকৌ: মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল চেয়ারম্যান ডেইজি সারোয়ার প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সোলায়মান আলী, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহনাজ মমতাজ, মিশিগান স্টেট আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সাহাব উদ্দিন, সিলেট স্টেট আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আলম রুমেল, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি হোসেন সোহেল রানা প্রমুখ।
এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ড. প্রদীপ রঞ্জণ কর ও তোফায়েল আহমদ চৌধুরী, উপ দপ্তর সম্পাদক আবদুল মালেক, কার্যকরী সদস্য রেজাউল করিম চৌধুরী, শরীফ কামরুল আলম হীরা, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হারুন ভুইয়া, যুগ্ম সম্পদক রফিকুল ইসলাম, নিউজার্সী স্টেট আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: সফিক উদ্দিন, সেচ্ছাসেবক লীগের সহ আন্তর্জাতিক সম্পাদক শাখাওয়াত বিশ্বাস, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি আর আমিন, সহ সভাপতি টি মোল্লা, মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী, খান শওকত, এস আলম বিপ্লব, গিয়াস উদ্দিন নান্নু, সহ সাধারণ সম্পাদক লস্কর মঈদুল জুয়েল, মুনতাসির মামুন সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক আতা, শ্রমিক কল্যাণ সম্পাদক নোমান শেখ, সুজন, আওয়ামী লীগ নেতা সাহাদাত হোসেন, সিরাজ সিকদার, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক শেখ জামাল হোসাইন, যুগ্ম আহবায়ক ইফজাল চৌধুরী, নুরুল ইসলাম, সাদিকুর রহমান, ইকবাল, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদেক শিবলী, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সুবল দেব নাথ, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জেড এ জয়, সাধারণ সম্পাদক আলআমিন আখন্দ, পঙ্কজ তালুকদার, ভিপি পলাশ, বিদ্যুৎ, রাসেল, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের নাজমুন নাহার গিনি, নুরুন্নাহার বেগম প্রমুখ।
নিউজার্সি, মিশিগানসহ বিভিন্ন স্টেট থেকে শ্রমিক লীীগের নেতা-কর্মীরা আসেন সমাবেশে। গভীর রাত পর্যন্ত চলা এ সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে সদ্য প্রয়াত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাবেক একান্ত সচিব ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নূরুল ইসলাম অনু এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সহধর্মিনী শিলা ইসলামের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়। দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি মাওলানা বজলুর রহমান। অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা হয়। প্রধান অতিথি ডা. দীপু মনিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান হয় অনুষ্ঠানে।
সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি সরকারের নানামুখি উন্নয়নের কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রীর যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে, বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে। ইতিমধ্যেই তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। ‘বালাদেশ এখন উন্নয়ন আর শান্তির রোল মডেল।’ জননেত্রী শেখ হাসিনার তিন টার্ম শাসন কালে গণতান্ত্রিক সুশাসন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, অর্থনীতি, তথ্যপ্রযুক্তি, যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিস্ময়কর উন্নতি হয়েছে। আগামী ২০২১ এ মধ্যম আয়ের দেশ ও ২০৪১ এ উন্নত দেশে পরিণত হবে। তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির আওতায় বাংলাদেশ ডিজিটাল হচ্ছে। জনগণ এর সুফল ভোগ করছে। আমরা কৃষকদের ভর্তুকি দিচ্ছি, ৮০ ভাগ মানুষকে বিদ্যুৎ দিচ্ছি, মানুষের মাথা পিছু আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন রান্না চলে বিদ্যুতে, রিক্সা চলে ব্যাটারিতে। তিনি আরো বলেন, এ সব উন্নয়নের কথা বলে সরকারের ইমেজ বাড়াতে হবে।
তিনি বলেন, দেশের সকল অর্জনে প্রবাসীদের অকুন্ঠ সমর্থনের কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, সব সময় প্রবাসী বাংলাদেশীরা সহযোগিতা করে আসছে। আমাদের অর্থনীতিতে বিরাট অবদান রয়েছে প্রবাসীদের। বিএনপি-জামাতের অপপ্রচার থেকে প্রবাসীদের সাবধান থাকার পরামর্শ দিয়ে বলেন, বর্তমান সরকারের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত বিএনপি-জামায়াত। কোন অপশক্তি যাতে দল ও দেশের বিরুদ্ধে ষঢ়যন্ত্র না করতে পারে সেদিকে সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। প্রবাসে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশের উন্নয়নে আরো বেশি সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়ে তিনি প্রবাসীদের মার্কিন প্রশাসনের সাথে সুসম্পর্ক ও নিবিড় যোগাযোগের লক্ষে মূলধারার রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হওয়ার পরামর্শ দেন।
ডা. দীপু মনি বলেন, মায়ানমারের রোহিঙ্গাদের ইতিহাসের নির্মম ও বর্বর হত্যাকান্ড, ধর্ষন, বাড়ী-ঘরে অগ্নিসংযোগসহ দেশত্যাগে বাধ্য করা হচ্ছে। আমরা মানবিক কারণে তাদের আশ্রয় দিয়েছি। মায়ানমারকে রোহিঙ্গাদের অবশ্যই ফিরিয়ে নিতে হবে। আমি আন্তর্জাতিক মহলের সমর্থন ও সহযোগিতার জন্যই এখানে এসেছি।
সম্মেলন টেলি কনফারেন্সে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মো: সিরাজুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নের্তৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে। আগামী নির্বাচনে দল যাতে আবারও ক্ষমতায় আসতে পারে সেই লক্ষে সুসংগঠিত হয়ে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এবার যুক্তরাষ্ট্র সফরকালীন বিএনপি-জামাতের দোসররা ব্যাপক কোন সরকার বিরোধী সমাবেশ করতে ব্যর্থ হয়েছে। কারণ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা ছিলেন যথেষ্ট সুসংগঠিত। প্রতিক্রিয়াশীল চক্র যতই ষরযন্ত্র করুক না কেন মুজিব আদর্শের সৈনিকরা প্রবাসের মাটিতে ঐক্যবদ্ধ ভাবে তার সমুচিত জবাব দেবেই। আগামী জাতীয় নির্বাচনের সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।
ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যুতে সবসময় সোচ্চার। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে আন্তর্জাতিক মহলের সমর্থন আদায়, পদ্মাসেতুতে বিশ্ব ব্যাংকের ঋন বাতিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভ, ড. উউনুসের ষড়যন্ত্র, ৫ই জানুয়ারী নির্বাচনসহ বিভিন্ন ইস্যুতে তার ভূমিকার কথা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও স্বীকার করেছেন।
অনুষ্ঠানে আব্দুর রহিম বাদশা তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী যথাসময়ে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্মেলন করার জোর দাবি জানান। তিনি দলকে আরো সুসংগঠিত ও শক্তিশালী করতে সম্মেলন ত্বরান্বিত করার জন্য ডা. দীপু মনির সহযোগিতা কামনা করেন। আগামী নির্বাচনে পুনরায় আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে সকল দ্বিধা-বিভক্তি ভুলে প্রবাস থেকে জোরাল ভূমিকা রাখতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
সভাপতির বক্তব্যে কাজী আজিজুল হক খোকন অনুষ্ঠান সফল করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশ ও দলের জন্য কাজ করার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।