Nov 22, 2017

নিউইয়র্ক : এলমহার্স্ট হাসপাতালে দেড় মাস যাবত কমায় থাকা মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলমের শয্যাপাশে কন্সাল জেনারেল শামীম আহসান এবং সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের ৩ কর্মকর্তা। ছবি-এনআরবি নিউজ।

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : দেড় মাসেও জ্ঞান ফিরেনি মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলমের। ৭২ বছর বয়েসী এই মুক্তিযোদ্ধা নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটস সংলগ্ন এলমহার্স্ট হাসপাতালে আইসিইউ-তে কমায় রয়েছেন গত ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে।
গত ২৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় জ্যামাইকায় হিলসাইড এভিনিউতে ‘এমএম ওয়ারলেস’ নামক একটি টেলিফোন দোকানের সামনে নিজের সেলফোনে কারো সাথে কথা বলার সময় এক দুর্বৃত্ত তা কেড়ে নিয়ে চম্পট দেয়। ঘটনার আকস্মিকতায় হতভম্ব হলেও একাত্তরের গেরিলা এই পড়ন্ত বয়সেও দুর্বৃত্তকে ধরার জন্যে দৌড় দিলে অপর দুর্বৃত্ত তার মাথায় প্রচন্ড আঘাত করে। জ্ঞান হারিয়ে কংক্রিটের রাস্তায় পড়ে যান শাহ আলম। সেই থেকে কমায় রয়েছেন কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার নজিবপুর গ্রামের এই মুক্তিযোদ্ধা।
৫ অক্টোবর তার সেলফোন ছিনতাইকারি ও হামলাকারি ১৬ বছর বয়েসী দুই দুর্বৃত্ত শাইকুয়ান কিম্ব্যাল এবং জালাল স্টিলীকে পুলিশ গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে।
মুুক্তিযোদ্ধা শাহ আলমের সর্বশেষ অবস্থার খোঁজ নিতে ১১ নভেম্বর শনিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে যান নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কন্সাল জেনারেল শামীম আহসান। এ সময় তার সাথে ছিলেন সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের যুক্তরাষ্ট্র ইউনিটের সভাপতি রাশেদ আহমেদ এবং সেক্রেটারি রেজাউল বারী ও ফোরামের নির্বাহী সদস্য এবং আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার।
কন্সাল জেনারেলকে কর্তব্যরত চিকিৎসক ড. হিকস জানান, ‘তার অবস্থার অবনতি না ঘটলেও আশাব্যঞ্জক কোন অগ্রগতি ঘটেনি। সর্বাত্মক চেষ্টা করা হচ্ছে। বাকিটা সৃষ্টিকর্তার দয়া। কারণ, তার মাথায় প্রচন্ড রক্তক্ষরণ হয়েছে।’ ‘বয়সের কারণে রিকভারিতে আশাব্যঞ্জক সাড়া মিলছে না’ বলে চিকিৎসকরা তার এক ঘনিষ্ঠ আত্মীয়কে জানিয়েছেন।
পারিবারিক কোটায় কনিষ্ঠ এক কন্যা এবং স্ত্রীকে নিয়ে ৪ বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছেন মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম। বছরখানেক আগে তার স্ত্রীর ব্রেন-টিউমার ধরা পড়ায় বড় ধরনের এক শংকায় দিনাতিপাতকালেই এমন আক্রমণের শিকার হন শাহ আলম। এরফলে ১৪ বছর বয়েসী কন্যাটি ভেঙ্গে পড়েছে।
কন্সাল জেনারেল শামীম আহসান চেষ্টা করছেন এই দু:স্থ পরিবারের জন্যে কিছু করতে। তবে সবটাই নির্ভর করবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অভিপ্রায়ের ওপর। কদিন আগে বাংলাদেশ কন্স্যুলেটের ফার্স্ট সেক্রেটারি শামীম হোসাইনও হাসপাতালে এই মুক্তিযোদ্ধার চিকিৎসার খোঁজ-খবর নিয়েছেন।
এদিকে, নিউইয়র্কস্থ কুষ্টিয়া জেলা সমিতির সভাপতি গিয়াসউদ্দিন এবং সেক্রেটারি আসাদুজ্জামান হাসপাতালে খোঁজ-খবর নিচ্ছেন মুুক্তিযোদ্ধা শাহ আলমের।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।