Dec 11, 2017

ওয়াশিংটন ডিসি : ইউনিভার্সাল চিল্ড্রেন ডে’-উপলক্ষে পিপুলএনটেকের অনুষ্ঠানে শিশুদের সাথে বিশিষ্টজনেরা। ছবি-এনআরবি নিউজ।

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা শিশুদের নিরাপদে মা-বাবার সাথে নিজ ভ’মিতে প্রত্যাবর্তনে মিয়ানমার সরকারকে বাধ্য করতে আন্তর্জাতিক জনমত সোচ্চারের লক্ষ্যে কাজের সংকল্প ব্যক্ত করার পাশাপাশি শিশুদের জন্যে নিরাপদ বিশ্ব প্রতিষ্ঠায় একযোগে কাজ করার কথা বললেন ‘ইউনিভার্সাল চিলড্রেন ডে’র বক্তারা। ২০ নভেম্বর ছিল জাতিসংঘ ঘোষিত ‘ইউনিভার্সাল চিলড্রেন ডে’। সে উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে ২ ডিসেম্বর শনিবার বর্ণাঢ্য এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ‘পিপুলএনটেক ফাউন্ডেশন’।
বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, ফিলিপাইন, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, মেক্সিকোসহ বিভিন্ন দেশের শিশু ছাড়াও এতে অংশ নেন সমাজ-সচেতন বিশিষ্টজনেরা।
অনুষ্ঠানে শিশুদের জন্য বিভিন্ন ধরনের বিনোদনধর্মী কার্যকলাপের আয়োজন করা হয়।
বিনোদনের পাশাপাশি ছিল বিভিন্ন প্রতিযোগিতা ও প্রীতি উপহারের।
অনুষ্ঠানে বিশেষ এক পর্ব রাখা হয় যেখানে অআগত শিশুরা তাদের উপস্থিতি স্বরূপ নিজ হাতের ছাপ দিয়েছে একটি সাদা ক্যানভাসে। আর এভাবেই জাতিসংঘ ঘোষিত দিবসটির মূল প্রতিপাদ্যের সাথে অংশগ্রহণকারি শিশুদের একাত্ম করার প্রয়াস চালানো হয়। বিশেষ করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে দারিদ্রপীড়িত শিশুদের স্বাস্থ্য, শিক্ষায় সাধ্যমত সহায়তার আহবান উচ্চারিত হয় সুধীজনের বক্তব্যে। হোস্ট ফাউন্ডেশনের পক্ষে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফারহানা হানিপ। তিনি নারী ও শিশুদের নিয়ে বিভিন্ন ধরণের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের পরিকল্পনা প্রকাশ করে সকলের আন্তরিক সহায়তা কামনা করেন।
সেবামূলক সংস্থা ‘পিপুলএনটেক ফাউন্ডেশন’ এর প্রতিষ্ঠাতা ইঞ্জিনিয়ার আবু বকর হানিপ নারী ও শিশুদের উন্নয়নমূলক কাজের পাশাপাশি নারীদের স্বনির্ভও করতে তার সংস্থা গৃহিত বিভিন্ন কর্মকান্ডের তথ্য উপস্থাপন করেন।
অনুষ্ঠানে ছিলেন ভয়েস অব আমেরিকা’র বাংলা বিভাগের প্রধান রোকেয়া হায়দার। রোকেয়া হায়দার তার বক্তব্যে শিশুদের সুন্দর ও নিরাপদ ভবিষ্যতের স্বার্থে সামাজিক ও পারিবারিক কার্যকলাপের গুরুত্ব তুলে ধরেন।
প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ এবং মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি মন্ত্রণালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা ড. ফাইজুল ইসলাম শিশুদের মানসিক বিকাশে অভিভাবকদের আরো উদারতা প্রদর্শনের আহবান জানিয়ে বলেন, ‘দাঙ্গা-বিধ্বস্ত জনপদের শিশুরাই শুধু নয়, প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়েও অনেক শিশুর স্বাভাবিক বিকাশের পথ রুদ্ধ হচ্ছে। এমন অসহায় শিশুদের জন্যে সমাজের ধনীক শ্রেণীকেও এগিয়ে আসতে হবে।’
ভয়েস অব আমেরিকার সাংবাদিক আনিস আহমেদ ও শিশুদের মানসিক বিকাশে, পরিবার তথা সমাজের ভূমিকার গুরুত্ব তুলে ধরেন । কমিউনিটি এ্যাক্টিভিস্ট ফারজানা ক্লারা আগামী বিশ্ব গড়ায় শিশুদের সাবলীল ভাবে বেড়ে উঠার প্রয়োজনীয়তা উপস্থাপন করেন।
প্রিয়বাংলা সংগঠনের পরিচালক প্রিয়লাল কর্মকার পিপলএনটেক এর এই ধরণের উদ্যোগের প্রশংসা করেন। তিনি তার বক্তব্যে আরো বলেন, পিপলএনটেক-এর বৃত্তি প্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীরা পরবর্তীতে শিশুদের বিভিন্ন ধরণের উন্নয়নমূলক কার্যক্রমে এগিয়ে আসবে।
তারেক মেহেদী শিশুদের পারিবারিক পরিবেশ কিভাবে তার ব্যক্তিত্বে প্রভাব ফেলে তা তুলে ধরেন।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ।