Jan 17, 2018

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : আপস্টেট নিউইয়র্কের হাডসন সিটি কাউন্সিলেও দুই বাংলাদেশী জয়ী হয়েছেন। এর একজন হলেন শেরশাহ মিজান এবং অপরজন দেওয়ান আরেফিন। একই সিটির বর্তমান কাউন্সিলম্যান আব্দুস মিয়া নির্বাচিত হয়েছেন সুপারভাইজার পদে। জানুয়ারি থেকে শুরু হবে নির্বাচিতদের দু’বছরের মেয়াদ।
নিউইয়র্ক সিটি থেকে ১২৫ মাইল দূর, বাফেলো তথা বিশ্বখ্যাত নায়েগ্রা জলপ্রপাতের নয়নাভিরাম দৃশ্য দেখার স্থলে যাবার পথে হাডসন সিটির কাউন্সিলম্যানরা ‘এলডারম্যান’ হিসেবে পরিচিত।
২ দশমিক ৩ বর্গমাইলের এই সিটির জনসংখ্যা ৬৭১৩ জন। গত কয়েক বছর যাবত এই সিটিতে বাংলাদেশীদের বসতি বেড়েছে। নিউইয়র্ক সিটি ছেড়ে হাডসনে বসতি গড়ার পর তারা মূলধারার রাজনীতির সাথেও মিশেছেন। এরই বহি:প্রকাশ ঘটলো গত ৭ নভেম্বরের নির্বাচনে। সিটির ৫টি ওয়ার্ডে ১০ জন এলডারম্যান নির্বাচন হয়েছে। ৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে নোয়াখালীর সন্তান শেরশাহ মিজান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। অপরদিকে ২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জয়ী হয়েছেন ঢাকার দেওয়ান আরেফিন সরোয়ার। এই ওয়ার্ডের এলডারম্যান শরিয়তপুরের সন্তান আব্দুস মিয়া পদটি ছেড়ে দিয়ে সুপারভাইজার পদে লড়ে বিজয়ী হয়েছেন। তারা সকলেই ডেমক্র্যাট। নতুন কম্যুনিটির সামগ্রিক সমৃদ্ধির ক্ষেত্রে তারা কাজের অঙ্গিকার করেছেন এবং সকলের আন্তরিক সহায়তা চেয়েছেন।
উল্লেখ্য, গত নির্বাচনে নিউজার্সি, পেনসিলভেনিয়া, মিশিগান অঙ্গরাজ্যে বিভিন্ন সিটিতে আরো ১২ বাংলাদেশী বিজয়ী হয়েছেন। সামনের বছরের মধ্যবর্তী নির্বাচনে মার্কিন কংগ্রেসে ডেমক্র্যাটিক পার্টির টিকিটের জন্যে মাঠে নেমেছেন পেনসিলভেনিয়া কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট-১ থেকে ড. নীনা আহমেদ। অপরদিকে, নিউ হ্যামশায়ার অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টের সদস্য (রিপ্রেজেনটেটিভ) আবুল খান রিপাবলিকান পার্টি থেকে কংগ্রেসম্যান পদে মনোনয়নের দৌড়ে নেমেছেন। তারা উভয়ে প্রবাসীদের সর্বাত্মক সমর্থন চেয়েছেন।
এদিকে, ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সিটি কাউন্সিলে বিজয়ীদের প্রাণঢালা অভিনন্দন এবং সামনের বছরের নির্বাচনে মার্কিন কংগ্রেসে মনোনয়নের জন্যে মাঠে নামা দুই বাংলাদেশী-আমেরিকানকে বিস্তারিত সহায়তার অঙ্গিকার করেছেন নিউইয়র্কে ডেমক্র্যাটিক পার্টির অন্যতম সংগঠক এবং মূলধারার ব্যবসায়ী আকতার হোসেন বাদল। বাদল এক বিবৃতিতে এনআরবি নিউজকে বলেছেন, ‘কাউন্সিলম্যান থেকেই ওপরে উঠতে হবে। তবে কংগ্রেসের নি¤œকক্ষ তথা প্রতিনিধি পরিষদে দলীয় মনোনয়নের জন্যে মাঠে নামা ড. নীনা এবং আবুল খানের তহবিল সংগ্রহে বাংলাদেশীদের উদারতা দেখাতে হবে। নির্বাচনী তহবিল যত পরিপুষ্ট হবে, ততোই তাদের বিজয় ত্বরান্বিত হবে।
একইভাবে বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়ে আরো বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশী-আমেরিকান ডেমক্র্যাটিক লীগের প্রেসিডেন্ট খোরশেদ খন্দকার এবং ডেমক্র্যাট ওসমান চৌধুরী।

0 Comments

Leave a Comment

বিজ্ঞাপন

পাঠকের মন্তব্য

বিজ্ঞাপন

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন।
ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন