Feb 24, 2018
আমি এ. আজীম দেওয়ান, “অর্গানাইজেশন ফর টরণ্টো ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাংগুয়েজ ডে মনুমেন্ট ইংক”- এর প্রেসিডেন্ট হিসাবে নয়, একজন বিবেকবান মানুষ এবং টেইলর ক্রীক পার্কে স্থাপিতব্য কানাডার সর্বপ্রথম স্থায়ী শহিদ মিনারের প্রথম উদ্যোক্তা হিসাবে আপনাদেরকে বাস্তব পরিস্থিতি জানানো আমার নৈতিক দায়িত্ব মনে করে আমি এই প্রেস রিলিজ প্রকাশ করলাম।
আপনারা জেনে নিশ্চয়ই আনন্দিত হবেন যে গত ২রা অক্টোবর, ২০১৭ টরণ্টো সিটি কাউন্সিল সর্বসম্মতিক্রমে স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপনের প্রস্তাব গ্রহণ ও অনুমোদন করে। অনুমোদনের পর হতেই বোর্ড অব ডাইরেক্টরস- এর কতিপয় সদস্য একত্রিত হয়ে ক্ষমতা কুক্ষিগত করার লক্ষ্যে আমাকে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে। আমি তাদেরকে কমিউনিটি কনসালটেশনকরে সকলের নিকট গ্রহণযোগ্য ব্যাক্তিদের সমন্বয়ে সাধারণ সভা করে বোর্ড অব ডাইরেক্টরস নির্বাচিত করার প্রস্তাব উত্থাপন করি এবং ৩১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জেনেট ডেভিস প্রস্তাবটি সমর্থন করেন। কিন্তু কতিপয় ডাইরেক্টর কমিউনিটি কনসালটেশনের বিপক্ষে মতামত প্রদান করেন। তাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে কমিউনিটি লিডারদের অন্তর্ভুক্ত না করে নিজেদের মধ্যে পদ পদবী বন্টন করে পরবর্তিতে বিভিন্ন সাব-কমিটি গঠনের মাধ্যমে কমিউনিটির গন্যমান্য লোকদের অন্তর্ভুক্তিকরণ এবং তাদের অধিনস্ত করা। আমি এই নোংরামির ঘোরতর প্রতিবাদ করি, ফলে তারা কয়েকবার কমিটি করার প্রচেষ্টা নিতেও ব্যর্থ হয়। অত:পর ৪ঠা জানুয়ারি ২০১৮ আরেকটি মিটিং করার উদ্যোগ নেয়। কমিউনিটির নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গের অনুরোধে সার্বজনীন কমিটির আহবায়ক জনাব আবু জুবায়ের দারা ৩রা জানুয়ারি সন্ধ্যায় আমাকে এবং জনাব ম্যাক আজাদকে নিয়ে একটি বৈঠক করেন। ঐ বৈঠকে জনাব আবু জুবায়ের দারা কমিউনিটির নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের নিয়ে বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধান করার আহবান জানান এবং ৪ঠা জানুয়ারির মিটিংটি ২ সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।
জনাব দারা আমাকে ই-মেইলের মাধ্যমে তখনই সবাইকে মিটিং পিছানোর কথা জানিয়ে দিতে বলেন এবং বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষনা করেন। আমি বাসায় ফিরে বোর্ড অব ডাইরেক্টরসদের ইমেইলে ৪ঠা জানুয়ারির মিটিং স্থগিত করে ১৭ই জানুয়ারি নতুন তারিখ নির্ধারণ করি। কিন্তু জনাব দারার কথা অমান্য করে জনাব ম্যাক আজাদ , জনাব ফুয়াদ চৌধুরী, জনাব মির্জা শহিদুর রহমান এবং জনাব রেজোয়ান রহমান ৪ঠা জানুয়ারি মিটিং করে ৪ টি পোষ্ট ৪ জন ভাগাভাগি করে নেয়। ৪ জন মিলে মিটিং করে বাংলাদেশী কমিউনিটির স্বার্থ সংশ্লিষ্ট একটি সংগঠনের কমিটি নির্বাচন করার সংবাদ কমিউনিটিতে প্রচার হওয়ার পর বিষয়টি কমিউনিটিতে হাস্যকর বিষয়ে রূপান্তরিত হয়। সংগঠনের সভাপতি হিসাবে আমাকেও বিভিন্ন প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়েছে।
উল্লেখ্য, অনিয়মতান্ত্রিক উপায়ে সভাপতির অনুপস্হিতিতে মাত্র ৪ জন ব্যক্তি ব্যক্তিস্বার্থ চরিতার্থ করবার লক্ষ্যে উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে ৪টি পদই নিজেদের মধ্যে বন্টন করে নিজেরাই চর দখলের ন্যায় নবগঠিত কমিউনিটির সংগঠনটিকে দখল করবার পায়তারা চালায়। যেটি কমিউনিটির জন্য অত্যন্ত লজ্জাকর বিষয় বলে আমি মনে করি।
এমতাবস্থায় আমি বাংলাদেশী কমিউনিটির সকলকে অনুরোধ করছি, আপনারা সকলের নিকট গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিবর্গের সমন্বয়ে একটি শক্তিশালী বোর্ড অব ডাইরেক্টরস গঠনপূর্বক প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য জোর আবেদন জানাচ্ছি।

0 Comments

Leave a Comment

বিজ্ঞাপন

পাঠকের মন্তব্য

বিজ্ঞাপন

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন।
ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন