Feb 24, 2018

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : ‘কাজের বিনিময়ে চিকিৎসা’ প্রকল্পের মনোভাব পোষণ করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। কাজ করতে সক্ষম আমেরিকানদের মেডিকেইড বন্ধ করা হবে কাজ না করলে। এ ব্যাপারে বিস্তারিত নির্দেশনা গত সপ্তাহে সকল অঙ্গরাজ্যে বিতরণ করা হয়েছে বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিশ্চিত করেছে। উল্লেখ্য, কাজে সক্ষম ২৫ লাখ আমেরিকান মেডিকেইড সুবিধা পাচ্ছেন বহুদিন যাবত। এর মধ্যে ৬০% কাজ করছেন। ৭৯% পরিবারের মধ্যে অন্তত: একজন কাজ-কর্ম করেন। প্রতি ১০ পরিবারের ৬টিতেই অন্তত: একজন প্রাপ্ত বয়স্ক কাজ-কর্ম করছেন। কাজ করা সত্বেও ফেডারেল রীতি অনুযায়ী এরা গরিব হিসেবে চিহ্নিত। ‘এ্যাফোর্ডেবল কেয়ার এ্যাক্ট’র আওতায় বার্ষিক ১৬ হাজার ডলারের মধ্যে উপার্জনকারিরাই ফেডারেল দারিদ্রসীমার নীচে বসবাসকারি হিসেবে বিবেচিত অর্থাৎ তারা কাজ করা সত্বেও মেডিকেইড পাচ্ছেন। এই কর্মসূচিতে রয়েছে ওয়াশিংটন ডিসিসহ ৩১ অঙ্গরাজ্য। এ কর্মসূচির অন্তর্ভুক্ত হবার প্রক্রিয়ায় রয়েছে মেইন অঙ্গরাজ্য। ট্রাম্প প্রশাসনের সর্বশেষ পলিসি অনুযায়ী শিশু, গর্ভবতি মহিলা, ৬৫ বছরের অধিক বয়েসী, কাজে অক্ষমরা মেডিকেইড পাবেন। মেডিকেইডপ্রাপ্তদের মধ্যে যারা গুরুতর অসুস্থতার চিকিৎসা নিচ্ছেন কিংবা ডিজেবল ভাতা পাচ্ছেন তারাও এ কর্মসূচিতে থাকবেন।
গরিব পরিবারের ফুলটাইম স্টুডেন্টরাও মেডিকেইড পাবেন কোন কাজ ছাড়াই।
১৮ বছর থেকে ৬৪ বছর বয়েসীদের কোন না কোন কাজ করতে হবে। সেটি হতে পারে ফুলটাইম অথবা পার্টটাইম। প্রয়োজনে কম্যুনিটি সার্ভিস দিতে হবে মেডিকেইড অব্যাহত রাখতে। ট্রাম্প প্রশাসন মনে করছে, কর্মক্ষমরা যদি কাজ করেন তাহলে তারা সুস্থ থাকবেন, একইসাথে দারিদ্রমুক্তির পথও পাবেন।

0 Comments

Leave a Comment

বিজ্ঞাপন

পাঠকের মন্তব্য

বিজ্ঞাপন

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন।
ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন