Feb 24, 2018

তহবিল সংগ্রহের অনুষ্ঠানে কয়েকজন নারী সংগঠকের সাথে ড. নীনা আহমেদ। ছবি-এনআরবি নিউজ।

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যের ফিলাডেলফিয়া সিটি এলাকা (কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট-পিএ-০১) থেকে ডেমক্র্যাটিক পার্টির মনোনয়ন লড়াইয়ে অবতীর্ণ ড. নীনা আহমেদ বলেছেন, ‘ভাগ্য গড়ার দেশ আমেরিকার নীতি-নির্দ্ধারণে কোন বাংলাদেশী নেই। এই শুন্যতা পূরণ করতে চাই এবং কংগ্রেসে বাংলাদেশ তথা দক্ষিণ এশিয়ানদের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করতে চাই।’
এই আসনের বর্তমান কংগ্রেসম্যান রোবার্ট ব্র্যাডি ১৯৯৮ সাল থেকে দায়িত্ব পালন করছেন। ডেমক্র্যাটিক পার্টির এই কংগ্রেসম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে তদন্ত শুরু করেছে এফবিআই। এরফলে নভেম্বরের নির্বাচনে তার জয়ী হবার কোন সম্ভাবনা নেই বলে ড. নীনা মাঠে নেমেছেন। উল্লেখ্য, সাড়ে ৬ লাখ জনঅধ্যুষিত এই এলাকাটির সিংহভাগ ভোটারই ডেমক্র্যাট। অর্থাৎ দলীয় মনোনয়ন পেলেই জয় নিশ্চিত। আরো উল্লেখ্য, এই এলাকার মানুষের ৩৭.১ শ্বেতাঙ্গ। কৃষ্ণাঙ্গ ভোটারের হার ৪৯.৫%। এশিয়ান-৪.৯%। ১৫% হলেন হিসপ্যানিক। অর্থাৎ অভিবাসীরা হলেন সংখ্যাগরিষ্ঠ এবং অশ্বেতাঙ্গরাই হচ্ছেন ড. নীনার ভোট ব্যাংক। দীর্ঘ ৩০ বছর যাবত এ এলাকার অভিবাসীদের অধিকার ও মর্যাদা নিয়ে কাজ করছেন ড. নীনা। তাকে ফিলাডেলফিয়া সিটি মেয়রের ইমিগ্রেশন কমিশনার এবং সর্বশেষ ডেপুটি মেয়র হিসেবেও অধিষ্ঠিত করা হয়েছিল। এরইমধ্যে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার উপদেষ্টার দায়িত্বও পালন করেছেন দীর্ঘ কয়েক বছর। সেই মেয়াদ ফুরোনোর আগেই ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণের দিনই তিনি পদ্যাগ করেন। এসব কারণে ফিলাডেলফিয়ায় ব্যাপক জনপ্রিয় ড. নীনাকে ডেমক্র্যাটিক পার্টির নীতি-নির্দ্ধারকরাই প্রার্থী হবার গ্রীণ সিগন্যাল দিয়েছেন বলে জানা গেছে।
গত শনিবার সন্ধ্যায় নিউজার্সী রাজ্যের প্রিন্সটনের বাংলাদেশীরা ড. নীনা আহমেদের নির্বাচনী তহবিল গঠনের অনুষ্ঠান করেন। এটি পরিচালনা করেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মিয়া হেলালি এবং শামসুন হেলালি। সঞ্চালনায় ছিলেন নিউজাসীর্র প্লেইন্স বরো থেকে দুই দুইবার নির্বাচিত কাউন্সিলম্যান ও বিজ্ঞানী ড. নুরুন্নবী ।
অনুষ্ঠানে ড. নীনা তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, আপনাদের সকলের দোয়া এবং সহযোগিতা চাই আসছে মে মাসে প্রাইমারী নির্বাচনে জয়ী হবার জন্যে।’ ‘এই আসনের বর্তমান কংগ্রেসম্যান রবার্ট ব্র্যার্ড দীর্ঘ উনিশ বছর যাবত আছেন। তার এই উনিশ বছরে ফিলাডেলফিয়ায় সেই রকম উন্নয়নের কোন ছোঁয়া লাগেনি। অধিকন্তু বর্তমানে তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন দুর্নীতির মামলা চলছে। সব মামলার তদন্ত হচ্ছে-এ অবস্থায় আমি সেই আসনটি ধরে রাখতে চাই-বলেন ড. নীনা।

 

0 Comments

Leave a Comment

বিজ্ঞাপন

পাঠকের মন্তব্য

বিজ্ঞাপন

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন।
ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন