Feb 24, 2018

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : ‘ট্রাম্প হটিয়ে আমেরিকার মান-মর্যাদা রক্ষায় দলমত নির্বিশেষে দেশপ্রেমিক সকল আমেরিকানকে আসছে নভেম্বরে মধ্যবর্তী নির্বাচনে ব্যালট যুদ্ধে জয়ী হবার জন্যে এখন থেকেই কাজ শুরু করতে হবে। তা না হলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব অক্ষুন্ন রাখা কঠিন হয়ে পড়তে পারে’-এ অভিমত পোষণ করেছেন তরুণ ডেমক্র্যাট এবং ব্যবসায়ী আকতার হোসেন বাদল। নিউইয়র্ক অঞ্চলে মূলধারার রাজনীতি ও কম্যুনিটি সার্ভিসে অবদানের জন্যে দক্ষিণ এশিয়ানদের ‘বিশেষ সম্মাননা’ প্রদানের এ অনুষ্ঠানে একই ভাষায় আরো বক্তব্য উপস্থাপন করেন নিউইয়র্ক স্টেট সিনেটর রনে জে প্রসাদ এবং লিরয় কমরী, স্টেট এ্যাসেম্বলীম্যান ডেভিড ওয়েপ্রিন, স্টেট এ্যাসেম্বলীওম্যান নিলি রজিক, সিটি কাউন্সিলম্যান পিটার কু, কাউন্সিলম্যান ব্যারি এস গ্রডেনিক, কাউন্সিলম্যান কস্টা কন্সট্যান্টাইনিডস, এটর্নী সোমা সাঈদ এবং আব্দুর রহিম হাওলাদার। সকলেই ‘ট্রাম্প হটাও-আমেরিকা বাঁচাও’ স্লোগানের পরিপূরক বিস্তারিত আলোকপাত করেন।
মূলধারায় দক্ষিণ এশিয়ানদের অবস্থান সুসংহত করার ক্ষেত্রে নিরন্তরভাবে কর্মরত কম্যুনিটি লিডারদের জন্যে এসব সম্মাননা ইস্যু করে নিউইয়র্ক স্টেট সিনেট, স্টেট এ্যাসেম্বলী এবং সিটি কাউন্সিল।
গত বুধবার রাতে নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসের হিমালয়া পার্টি হলে কুইন্স ডেমক্র্যাটিক পার্টির অন্যতম সংগঠক জয় চৌধুরীর সঞ্চালনায় ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, নেপাল, আফগানিস্তানের নেতৃবৃন্দও উপস্থিত হয়ে বহুজাতিক এই আমেরিকায় দক্ষিণ এশিয়ানদের ঐক্য সুসংহত করার সংকল্প ব্যক্ত করেন। ‘সময়ের তাগিদে এমন একটি কর্মসূচির গুরুত্ব অপরিসীম ছিল এবং ঐক্যের এই বন্ধনকে অটুট রেখে প্রতিটি কাজে অবতীর্ণ হতে হবে দক্ষিণ এশিয়ানদের’-এ কথা বলেন আকতার হোসেন বাদল। বাদল উল্লেখ করেন, ‘নিউজার্সির অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টসহ বিভিন্ন সিটি কাউন্সিলে দক্ষিণ এশিয়ান-আমেরিকান ৫০ জন নির্বাচিত হয়েছেন। আরো অনেকে রয়েছেন কম্যুনিটি বোর্ড, স্কুল বোর্ডসহ বিভিন্ন পর্যায়ে। অপরদিকে, নিউইয়র্কে দক্ষিণ এশিয়ানদের সংখ্যা নিউজার্সির তুলনায় অনেক বেশী হলেও কংগ্রেসে দূরের কথা অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টে, নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে এখন পর্যন্তও একজনও জয়ী হতে পারিনি। অনৈক্য, বিভদে-বিভক্তির কারণে এহেন নাজুক অবস্থায় রয়েছি আমরা।’
এ অনুষ্ঠানে রাজনীতি, সমাজসেবা, পেশাগত কৃতিত্ব এবং কম্যুনিটি সংগঠনে বিশেষ অবদানের জন্যে সম্মাননা প্রাপ্তদের মধ্যে বাংলাদেশী আমেরিকানরা হচ্ছেন সমাজসেবক কাজী নয়ন, সংগঠক ও সমাজকর্মী আকতার হোসেন বাদল, জ্যাকসন হাইটস বিজনেস এসোসিয়েশনের নেতা শাহনেয়াজ এবং মাহাবুবুর রহমান টুকু, বাংলাদেশ সোসাইটির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুর রহিম হাওলাদার, এটর্নী সোমা সাঈদ, ব্যবসায়ী ও সমাজকর্মী আমজাদ হোসেন সেলিম, আহসান হাবীব, মাকসুদুর রহমান, সাঈদুর রহমান লিঙ্কন, সালাম ভ’ইয়া, লেখিকা বিদিতা রহমান, সাংবাদিক আবু তাহের, কন্ঠশিল্পী সবিতা রানী দাস, সমাজকর্মী ফারহানা চৌধুরী প্রমুখ।
সম্মাননা প্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন জেএফকে ডেমক্র্যাটিক ক্লাবের বোর্ড মেম্বার দীলিপ নাথ, নিউইয়র্ক স্টেট গভর্ণরের প্রতিনিধি হার্স পরেখ, শ্রমিক ইউনিয়ন লিডার মিলন রহমান, কম্যুনিটি অর্গানাইজার এটর্নী সোমা সাঈদ, অধ্যাপক ড. জবি জ্যাকব, মালিনী সাহা, সাঈদ বুখারী, লক্ষণ লামা, ইন্দ্রা তামাঙ, শান্ত ঠকার, পাউন ইয়নজ্যান, জার্নিল সিং, এটর্নী শেখর কৃষ্ণ, প্যাট্রিক জর্দান, নীমা শেরপা, ভারত লামা, মঙ্গলদাস শ্রেষ্ঠ প্রমুখ।

 

0 Comments

Leave a Comment

বিজ্ঞাপন

পাঠকের মন্তব্য

বিজ্ঞাপন

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন।
ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন