Feb 24, 2018

নিউইয়র্ক : জাতিসংঘের সামনে বিএনপির বিক্ষোভ। ছবি-এনআরবি নিউজ।

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : ‘বাঁশের লাঠি তৈরী কর-জিয়ার বাংলা স্বাধীন কর’, ‘আমার নেত্রী, আমার মা-বন্দি হতে দেব না’, ‘আওয়ার ডিমান্ড টু রিস্টোর ডেমক্র্যাসি’, ‘ছি ছি হাসিনা-লজ্জায় বাঁচিনা’ ইত্যাদি স্লোগানে জাতিসংঘ সদর দফতরের সম্মুখে বিক্ষোভ করেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি, যুবদল, তারেক পরিষদ, জাতীয়তাবাদি ফোরাম, জাসাস এবং ছাত্রদলের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। খালেদা জিয়াকে ‘সাজানো মামলায় ফরমায়েসী রায়ে দন্ডিত করা হবে’ এমন আশংকায় ক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা ৫ ফেব্রুয়ারি সোমবার অপরাহ্নে এ কর্মসূচি পালন করেন।
হাড় কাঁপানো শীত উপেক্ষা করে শতশত নেতা-কর্মীর এ কর্মসূচি জাতিসংঘের ক’টনীতিকদের দৃষ্টি এড়ায়নি। অংশগ্রহণকারিরা ইংরেজীতে লেখা পোস্টার, প্ল্যাকার্ড বহন করায় ভিনদেশীরাও সহজেই অনুধাবনে সক্ষম হন ক্ষোভের কারণ।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্্র বিএনপির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ স¤্রাট, সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক গিয়াস আহমেদ, সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ জসীম ভ’ইয়া, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও তারেক পরিষদ আন্তর্জাতিক পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপার্সন আকতার হোসেন বাদল, মহাসচিব জসীম উদ্দিন, জাসাসের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক গোলাম ফারুক শাহীন, যুবদলের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক এম এ বাতিন, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা মিল্টন ভ’ইয়া কাজী আজম, আবুল বাশার, যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী প্রমুখ।
আব্দুল লতিফ সম্রা বলেছেন, ‘অবৈধভাবে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রেখে শেখ হাসিনা এবং তার সরকার বিএনপির চেয়ারপার্সনকে সাজানো মামলায় জেলে নিতে চান। সামনের নির্বাচনে বিএনপি যাতে অংশ না নেয়-তেমন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে আওয়ামী লীগ। কিন্তু প্রবাসীরা তা কখনো মেনে নেবে না।’
অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘সরকারের মদদে তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দন্ড ঘোষিত হলে প্রবাস থেকেও দুর্বার আন্দোলন রচনা করা হবে।’
গিয়াস আহমেদ বলেন, ‘নব্বইয়ের স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের চেয়েও কঠিন আন্দোলন শুরু করা হবে অন্যায়ভাবে খালেদা জিয়াকে জেলে নেয়ার অপচেষ্টা চালানো হলে।’
বাংলাদেশে যেদিন রায় ঘোষণার কথা, তার সাথে সঙ্গতি রেখে নিউইয়র্ক সময় ৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার সন্ধ্যা থেকেই জ্যাকসন হাইটসে সর্বস্তরের নেতা-কর্মীকে জড়ো হবার উদাত্ত আহবান জানান জিল্লুর রহমান।
আকতার হোসেন বাদল বলেন, ‘খালেদা জিয়া তথা জিয়া পরিবারের আকাশচুম্বি জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে শেখ হাসিনা এবং তার সরকার গভীর ষড়যন্ত্রে মেতে উঠে মূলত: নিজেদের ভয়ংকর পরিণতি ডেকে আনছেন।’
এম এ বাতিন বলেন, ‘যুব সমাজ আজ এই প্রবাসেও ঐক্যবদ্ধ যে কোন ষড়যন্ত্র রুখে দিতে।’
জাকির এইচ চৌধুরী বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার কিছু হলে লাগাতার আন্দোলন শুরু করা হবে জাতিসংঘের সামনে।’
নেতৃবৃন্দের মধ্যে আরো ছিলেন আলহাজ্ব বাবরউদ্দিন, মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী, আব্বাস উদ্দিন দুলাল, ফারুক হোসেন মজুমদার, হেলালউদ্দিন, ফিরোজ আলম, কাজী আজম, এম এ সবুর, গিয়াসউদ্দিন, জাহাঙ্গির সোহরাওয়ার্দি, আমানত হোসেন, হাবিবুর রহমান সেলিম রেজা, রুহুল আমিন নাসির, সাইফুল ইসলাম, খলকুর রহমান, মাজহারুল ইসলাম জনি প্রমুখ।

 

2 Comments

Kamal February 8, 2018 at 3:56 am

Bangladesh Nangta Party (BNP)…. you should know that your leaders are corrupted and criminal

Farouk Waheed February 13, 2018 at 12:22 am

এটা আবার কেমন স্লোগান? বাংলাদেশকে একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধ করে হানাদার বর্বর পাকিস্তানিদেরকে আত্মসমর্পণ করিয়ে শোচনীয়ভাবে পরাজিত করে ৩০ লক্ষ শহীদের তাজা লাল রক্তের বিনিময়ে এবং ৪ লক্ষাধিক মা-বোনোর সম্ভ্রম হারানোর বিনিময়ে আমার প্রাণপ্রিয় বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছি। তাহলেকি আবার যুদ্ধ করে হারানো পূর্বপাকিস্তানকে উদ্ধার করতে হবে?

Leave a Comment

বিজ্ঞাপন

পাঠকের মন্তব্য

বিজ্ঞাপন

লক্ষ্য করুন

প্রবাসের আরো খবর কিংবা অন্য যে কোন খবর অথবা লেখালেখি ইত্যাদি খুঁজতে উপরে মেনুতে গিয়ে আপনার কাংখিত অংশে ক্লিক করুন। অথবা ‌উপরেরর মেনু'র সর্বডানে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন এবং আপনার খবর বা লেখার হেডিং এর একটি শব্দ ইউনিকোড ফন্টে টাইপ করে সার্চ আইকনে ক্লিক করুন।
ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন